উখিয়ায় পাহাড় কাটার মহোৎসব!

উখিয়া প্রতিনিধি:

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার জালিয়াপালং ইউনিয়নে চলছে সরকারি পাহাড় কাটার মহোৎসব। জালিয়াপালং ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের চিহ্নিত ইয়াবা ব্যবসায়ী ছৈয়দ হোসেনের পুত্র মনজুর আলমের নেতৃত্বে চলছে পাহাড় কর্তনের মহোৎসব।

জানা যায়, মনজুর আলম দীর্ঘদিন ইয়াবা ব্যবসার আড়ালে সিন্ডিকেট তৈরি করে ১০-১৫টি ডাম্পার দিয়ে দিনরাত নিয়মিত মাটি পাচার অব্যাহত রেখেছে। তথ্যসূত্রে জানা যায়, ইনানী রেঞ্জের আওতাধীন জালিয়াপালং বিট অফিসের কর্মকর্তা আরজুকে ম্যানেজ করে প্রতিনিয়ত পাহাড় কেটে মাটি পাচার করে যাচ্ছে।

যার ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সরকারি বিশাল পাহাড়ি বনভূমি। হুমকির মুখে পড়ছে এলাকার পরিবেশ। তথ্যসূত্রে আরো জানা যায়, মনজুর আলম ডাম্পারের শ্রমিক থেকে হঠাৎ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে অনেকগুলো ডাম্পার ও ট্রাকের মালিক বনে যান।

এলাকার মাদক সেবনকারী যুবকদের মাধ্যমে গড়ে তুলে ইয়াবা ও পাহাড় কাটার বিশাল সিন্ডিকেট। তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার পত্রিকা ও অনলাইন পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করা হলেও সাংবাদিকদের নাজেহালের চেষ্টা করেন। পাহাড় কাটার মাটি পাচারের ফলে এলাকার যাতায়াতের একমাত্র রাস্তাটি বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। যার ফলে বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের তীব্র ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে জালিয়াপালং বিট অফিস কর্মকর্তা আরজুর ফোনে বার বার যোগাযোগ করা হলেও রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

ইনানী রেঞ্জ কর্মকর্তা মির আহমদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পাহাড় কাটা বন্ধ করতে জালিয়াপালং বিট অফিসকে নির্দেশ প্রদান করা হলেও এতে ব্যর্থ হন অফিসের কর্মকর্তারা। মাটিখেকো মনজুর সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

তবে এলাকাবাসীর একটাই প্রশ্ন,মাটিখেকো ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মনজুরের এত শক্তির উৎস কোথায়? এবং তা খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তারা।