উখিয়ায় স্কুল ছাত্রীর লাশ উদ্ধার: পরিবার বলছে পরিকল্পিত হত্যা

গাছের সাথে ঝূলন্ত অবস্থায় স্কুল ছাত্রীর লাশ উদ্ধার হলেও এখনও কোন মামলা হয়নি

বিশেষ প্রতিবেদক:

গত শনিবার (১১ জুলাই) উখিয়ার ইনানী শফির বিল এলাকা হতে শারমিন আক্তার তোফা (১৫) নামক এক স্কুল ছাত্রীর লাশ ফাঁস লাগানো অবস্থায় গাছের ডাল থেকে উদ্ধার করা করা হয়। এই ঘটনায় ওই ছাত্রীর ফুফাতো ভাইকে আটক করা হলেও পরে ছেড়ে দেয়া হয়।

তোফার বড় বোন সুমি আকতার বলেন, ঘটনার পর অভিযুক্ত নুরুল আমিনের সাথে ফোনে কথা হয়। সে জানায় শুক্রবার সন্ধ্যায় তোফাকে আমি নিয়ে যায়। কথাবার্তা শেষ করে তাকে রেখে চলে যায়। তারপর কি হয়েছে তা আমি জানি না।

তার পিতা আলী আহমদ জানান, তোফা ইনানী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সম্প্রসারিত ৬ষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী। তার মেয়ে কখনো আত্মহত্যা করতে পারে না। তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে গাছের সাথে ঝুঁলিয়ে রাখা হয়েছে। তার ফুফাত ভাই নুরুল আমিনের সাথে তার দীর্ঘ ১ বছর প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সেই তাকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। ঘটনার পর তার বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিই। তবে এখনো মামলা হয়নি।

তবে ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ফারুক আহমদ বলেন, এ বিষয়ে আমরা যথেষ্ট আন্তরিক। প্রাথমিকভাবে একটি অপমৃত্যু রেকর্ড করা হয়েছে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত কাউকে আসামী করে মামলা অন্তর্ভুক্ত করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, ওই স্কুল ছাত্রীর মৃত্যুতে আমরা প্রকৃত কারণ জানার অপেক্ষায় আছি। তার ডিএনএ পরীক্ষা করে সে কি কারও দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছে কিনা তার সঠিক কারণ নির্ণয় করা হবে। তারপর সবকিছু বিবেচনা করে মামলা নেয়া হবে। তিনি আশা করেন তার পরিবার ন্যায় বিচার পাবেন।