একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক অধ্যাপক ডা. মাজহারুল ইসলাম আর নেই

ভাষা সৈনিক ডা. মির্জা মাজহারুল ইসলাম

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক অধ্যাপক ডা. মির্জা মাজহারুল ইসলাম (৯৩) আর নেই। রবিবার (১১ অক্টোবর) সকাল ৯টার দিকে ঢাকার বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। ডা. মাজহারুল ইসলামের ভাতিজা মির্জা সানোয়ারুল রানা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মির্জা সানোয়ারুল রানা বলেন, ‘তিনি বার্ধক্যজনিতরোগে দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন। পরে তিনি বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সর্বশেষ করোনা পজিটিভ হিসেবে শনাক্ত হন তিনি। বিকেলে তাকে মিরপুরের বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে দাফন করা হয়।’ মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই ছেলে ও দুই মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

ভাষা সৈনিক অধ্যাপক মির্জা ডা. মাজহারুল ইসলাম ১৯২৭ সালের ১ জানুয়ারি টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার চারান গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম হেলাল উদ্দিন ও মাতার নাম চান খাতুন।

তিনি ১৯৪৪ সালে বল্লা করোনেশন ইংলিশ হাইস্কুল থেকে প্রথম বিভাগে ম্যাট্রিকুলেশন পাস করেন। ১৯৪৬ সালে কোলকাতা থেকে আইএসসি, ১৯৫১ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস ডিগ্রি লাভ করেন। ১৯৬৩ সালে মাস্টার অব এফআরসিএস ডিগ্রি লাভ করেন।

এর আগে তিনি ১৯৫২ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কর্মজীবন শুরু করেন। এরপর তিনি হাসপাতালের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও তিনি বারডেমের পরিচালকের দায়িত্ব পালনকালে প্রতিষ্ঠানটির প্রভূত উন্নতি হয়।

পরিবার সূত্র জানয়েছে, ১৯৪৮ সালে ভাষা আন্দোলনের সময় মাজহারুল ইসলাম ঢাকা মেডিকেল কলেজের ছাত্র ছিলেন। আর ১৯৫২ সালে ২১ ফেব্রুয়ারিতে ঢাকা মেডিকেল কলেজের চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ২১ ফেব্রুয়ারি গুলিবর্ষণে আহত ছাত্র-জনতার চিকিৎসা ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

এছাড়াও তিনি ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছেন। ডা. মির্জা মাজহারুল ইসলাম ভাষা আন্দোলনে অবদানের জন্য ২০১৮ সালে একুশে পদক লাভ করেন। তিনি তার নিজ গ্রাম চারানে একটি উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছেন।

বিডি/টাপ্র