এনজিও’র সাথে সাংবাদিকদের দূরত্ব কমিয়ে একসাথে কাজ করার আহবান

নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদেরকে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে সাময়িক ভাবে আশ্রয় দিয়েছেন। এখন তাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়টিও সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটা কার্যকর করতে স্থানীয় পর্যায়ের রাজনীতিবিদ, দাতাসংস্থা ও জাতিসংঘ প্রতিনিধিদের সমন্বিত ভাবে আন্তরিক হতে হবে। তবে আশ্রিত রোহিঙ্গারা যতদিন থাকবে, ততদিন মানবিক সহযোগিতা ও মানবিক আচরণ করে যেতে হবে। এসময় তিনি এনজিও গুলোর সাথে সাংবাদিকদের দূরত্ব কমিয়ে এক সাথে কাজ করার আহবান জানান। এছাড়াও স্থানীয়করণের উপর ষ্পষ্ট ব্যাখ্যা প্রদান করেন। তিনি সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণ এবং প্রযুক্তিগত বিষয়েও সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।
১৬ জুলাই বিকেল সাড়ে ৩টায় উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের নির্বাহী কমিটির সাথে সম-সাময়িক ও নানা বিষয় নিয়ে ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী উপরোক্ত কথা গুলো বলেন।

তিনি আরো বলেন, স্থানীয়দের জন্য ২৫শতাংশ বরাদ্ধ যথাযথ ভাবে বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে কোস্ট ট্রাস্ট কাজ করে যাচ্ছে। এতে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার জন্য সংবাদকর্মী ও স্থানীয় সুশীল সমাজের দায়িত্বশীল রাখতে হবে।
ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব সভাপতি শফিক আজাদ তাঁর স্বাগত বক্তব্যে বলেন, এনজিও এবং সাংবাদিকদের মধ্যেকার দূরত্ব থেকে যাচ্ছে। এই দূরত্ব কমিয়ে এনে একসঙ্গে কাজ করলে ভালো হয়। তিনি বলেন, সাংবাদিকরা দেশের সমস্যা-সম্ভাবনা, অনিয়ম, দূর্নীতি ও গণমানুষের দু:খ, দুর্দশার কথা তুলে ধরলেও তৃণমুলের সেই গণমাধ্যমকর্মীদের খবর কেউ রাখে না। সরকারি-বেসরকারি ভাবে সাংবাদিকদের জন্য নানা সুবিধা দেয়া হলেও মফস্বলের কর্মরত সাংবাদিকরা তা থেকে প্রতিবারই বঞ্চিত হয়ে আসছে।
তিনি ভবিষ্যতে এসব উত্তরণের জন্য সদস্যদের কল্যাণে একটি তহবিল গঠন। সংবাদকর্মীদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নে এনজিও গুলোর প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

এ সময় সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন দৈনিক দেশ রূপান্তরের উখিয়া প্রতিনিধি ও উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের জন্য একটি স্থায়ী অফিস নির্মাণের গুরুত্ব এবং অস্থায়ী অফিসের জন্য প্রয়োজনীয় আবসাবপত্র প্রদানের দাবী জানান।
উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব এর অর্থ সম্পাদক, দৈনিক জনবাণী’র কক্সবাজার প্রতিনিধি ও রাইজিং কক্স নিউজ সম্পাদক এম. সালাহ উদ্দিন আকাশ বলেন, গণমাধ্যমকর্মীরা যে কোন উন্নয়ন কর্মকান্ডের পাশাপাশি অনিয়ম, দূর্নীতির বিষয়েও বস্তুনিষ্ট তথ্য নিয়ে সংবাদ পরিবেশন করে থাকে। তাই এনজিও গুলোকে কাজের ক্ষেত্রে সচ্ছতা এবং তথ্য প্রদানে আরো আন্তরিক হওয়া দরকার।
উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক রফিক মাহমুদ বলেন, স্থানীয়করণ বাস্তবায়নে মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে এনজিও গুলোতে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে স্থানীয় সাংবাদিকদের পদায়ন করার দাবী জানান।

উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব এর নির্বাহী সদস্য ও টিটিএন প্রতিনিধি তাসপ্রিয়া বিনতে কাশেম বলেন, এনজিও গুলো রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক শিশুদের বিকাশে নিয়ে কাজ করলেও কক্সবাজারের স্থানীয় শিশু ও পথশিশুদের নিয়ে কার্যকর কোন পদক্ষেপ চোখে পড়েনি। ভবিষ্যতে স্থানীয় শিশুদের মানবিক বিকাশে এনজিও গুলো কাজ করার জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

উখিয়া অনলাইন প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক ও দৈনিক আমাদের সময় এর উখিয়া প্রতিনিধি পলাশ বড়ুয়া’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত ভার্চ্যুয়াল মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করেন, কোস্ট ট্রাস্টের সহকারি পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম, ডিবিডিনিউজ২৪ সম্পাদক জসিম আজাদ, সিএসবি২৪ ডটকম এর যুগ্ম বার্তা সম্পাদক সবুজ বড়ুয়া, কক্সবাজার সময়ের নিউজ রুম এডিটর কনক বড়ুয়া শ্রাবণ।