কোথায় উন্নয়ন, দুদিনের বৃষ্টিতে ঢাকা তলিয়ে যায় : রিজভী

নিজস্বপ্রতিবেদক:

দেশের মানুষ দুর্বৃত্তপরায়ণ কর্তৃত্ববাদী শাসকের যাঁতাকলে নিষ্পেষিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘দেশবাসী সরকারের ভয়ংকর দুঃশাসনে অতিষ্ঠ হয়ে গেছে। আজকে কোথায় উন্নয়ন? দুদিনের বৃষ্টিতে ঢাকা শহর পানিতে তলিয়ে যায়। হাঁটুপানি কোমর পানি ভেঙ্গে নগরবাসীকে চলাচল করতে হচ্ছে। এই সরকার তাহলে কোথায় উন্নয়ন করছে? তারা উন্নয়ন করেছে ফ্লাইওভারে, তারা উন্নয়ন করেছে মেগাপ্রজেক্ট। কারণ সেখানে শুধুই কাঁচা টাকা। তারা হাসপাতালের দিকে নজর দেয়নি। স্কুল-কলেজ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের দিকে নজর দেয়নি। অর্থাৎ ভালো কোনো কিছুতেই সরকারের অবদান নেই।’

আজ মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন বিএনপির এ জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।

বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির কুমিল্লা বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মরহুম আব্দুল আউয়াল খান স্মরণে এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোট।

এ সময় অন্যদের মধ্যে সংগঠনের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব জাকির হোসেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের সাবেক কেন্দ্রীয় সহসাংগঠনিক সম্পাদক কাজী ইফতেখারুজ্জামান শিমুল, স্বেচ্ছাসেবক দলের মোর্শেদ আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রিজভী বলেন, ‘বর্তমান সরকারের দুর্নীতির কারণে দেশের হাসপাতালগুলোতে স্বাস্থ্যসেবা ভেঙে পড়েছে। আজকে এসব দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত কারা? পত্রিকার খবরে বলা হচ্ছে মন্ত্রী-এমপি ও তাদের সন্তানেরা জড়িত।’

করোনা নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা প্রসঙ্গে বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘সংবাদপত্রের পাতায় বেরিয়েছে, দুদিন ধরে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা কমে গেছে। কারণ মানুষ হাসপাতালে যাচ্ছে না। কারণ যে অসুস্থ না তাকে যদি পজিটিভ সার্টিফিকেট দেওয়া হয় তাহলে তো তার সবই শেষ। আর যে অসুস্থ আছে, যে আক্রান্ত হয়েছে তাকে দেয় নেগেটিভ সার্টিফিকেট। এই আতঙ্ক নিয়ে কেন মানুষ হাসপাতালে যাবে? কেন পরীক্ষা করাবে? এই কারণে করোনা পরীক্ষার সংখ্যা দিনকে দিন কমে যাচ্ছে।’

রিজভী বলেন, ‘এই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে অনাচার-অবিচার, রাজনৈতিক মতপ্রকাশের স্বাধীনতাকে ভয়ংকরভাবে দমন করার কারণে। এ কারণে সমাজে সাহেদদের উত্থান হয়েছে, সাবরীনাদের উত্থান ঘটেছে। কাগজে বেরিয়েছে একটা চামচের দাম এক হাজার টাকা, একটা বাটির দাম ১০ হাজার টাকা।