চট্টগ্রামে গৃহবধূকে তুলে নিয়ে দশজন মিলে ধর্ষণ, ৭ আসামি রিমান্ডে

গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনায় গ্রেফতার এক নারীসহ আটজন

চট্টগ্রাম ব্যুরো:

চট্টগ্রামে বাসায় ফেরার পথে এক গৃহবধূকে রিকশা থেকে নামিয়ে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গ্রেফতার আট আসামির মধ্যে ৭ জনকে রিমান্ডে পাঠিয়েছেন সেখানকার একটি আদালত।

মামলার প্রধান আসামি জাহাঙ্গীর আলমকে ৬ দিন এবং অপর ৬ আসামির তিনদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়।

শনিবার চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুল আমিনের আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

তিনদিন করে রিমান্ডপ্রাপ্ত ৬ আসামিরা হল- ইউসুফ, রিপন, সুজন, দেবু বড়ুয়া ওরফে জোবায়ের হোসেন, শাহেদ ও রিন্টু দত্ত ওরফে বিপ্লব।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চান্দগাঁও থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রাজেশ বড়ুয়া প্রত্যেক আসামির ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন আদালতে। শুনানি শেষে বিভিন্ন মেয়াদে ৭ জনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

এদিকে এ মামলায় গ্রেফতার নারী আসামি মনোয়ারা ওরফে লেবুর মা এ ঘটনার দায় স্বীকার করে শনিবার সন্ধ্যায় আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া থেকে নগরী চকবাজারের বাসায় ফেরার পথে রিকশা থেকে নামিয়ে শহরের চান্দগাঁও কলোনীতে নিয়ে গিয়ে ১০ জন মিলে গৃহবধূকে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় পরদিন ওই গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে চান্দগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর পরই পুলিশ জড়িত মনোয়ারা নামের এক নারীসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করে। চান্দগাঁও থানার ওসি আতাউর রহমান খন্দকার যুগান্তরকে বলেন, অন্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

বিডি/চট্টপ্র