ঢাকা-৫ উপনির্বাচন: বিএনপি প্রার্থী সালাহউদ্দিনের প্রচারে হামলা, আহত ১০

নির্বাচনী প্রচারণায় হামলায় সাংবাদিকসহ বিএনপির অন্তত ১০ জন আহত হন। ছবি: প্রতিনিধি

বিডি দর্পণ ডেস্ক:

ঢাকা-৫ সংসদ উপনির্বাচনে প্রচারণার দ্বিতীয় দিনে বিএনপি প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদের প্রচারে হামলার ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কুদারবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে সাংবাদিকসহ বিএনপির অন্তত ১০ জন আহত হন।

প্রচারের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে তিনটায় রাজধানীর কদমতলীর ৬১ নং ওয়ার্ড এর কুদারবাজার মোড় এলাকা থেকে নির্বাচনী গণসংযোগ শুরু করে সালাহউদ্দিন।

পরে বাবর আলী মার্কেটে, হাজী নাসির উদ্দিন রোড, সরাই মসজিদ রোড, হাজী কমর আলী সড়ক, দক্ষিণ কুতুবখালির বিভিন্ন গলি, উত্তর কুতুবখালি খালপাড়, দনিয়া কবরস্থান রোড, দনিয়া রোডসহ দনিয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকার ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যান তিনি।

গণসংযোগটি আবার কুদারবাজার এলাকায় গেলে হঠাৎ লাঠিসোটা নিয়ে কিছু সন্ত্রাসী হামলা করে। এতে সিনিয়র সাংবাদিক মঞ্জুর মিলন, যাত্রাবাড়ী থানা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক, ছাত্রদল নেতা আশিকুর রহমান সুজন, মেহেদী হাসান রাব্বিসহ ১০ জন আহত হন।

এসময় বিএনপির প্রার্থীর সাথে সিটি কর্পোরেশনের ৬১ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সাবেক দনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. জুম্মন মিয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শ্রমিকদলের সাধারন সম্পাদক মাহবুব আলম বাদল, যাত্রাবাড়ী থানা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম রফিক সহ কয়েক শত নেতাকর্মী ও সমর্থক উপস্থিত ছিলেন।

তাৎক্ষণিকভাবে এই হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি প্রার্থী সালাহউদ্দিন আহমেদ ও তার ছেলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আহমেদ রবিন।

তানভীর আহমেদ রবিন বলেন, আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে তারা এ জঘন্য হামলা চালায়। তিনি জড়িতদের গ্রেফতার করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।

বিডি/রাপ্র