ঢাবি ছাত্রীর ধর্ষণ মামলায় ছাত্র অধিকারের দুজনকে গ্রেফতার

ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ধর্ষণ ও ধর্ষণে সহযোগিতা করার অভিযোগে করা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর মামলায় আটক দুই ছাত্রকে গ্রেফতার দেখিয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের লালবাগ বিভাগ।

তারা হলেন- সাইফুল ইসলাম ও নাজমুল হুদা। দুজনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র। তারা সরকারি চাকরিতে কোটা তুলে দেয়ার দাবিতে গড়ে ওঠা প্লাটফরম বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতা।

সাইফুল বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক ও সংগঠনটির ঢাবি শাখার সহসভাপতি নাজমুল। এই দুজনকে গতকাল আটক করা হয়। আজ তাদের গ্রেফতার দেখানো হলো।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গোয়েন্দা পুলিশের লালবাগ বিভাগের উপকমিশনার রাজিব আল মাসউদ। তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, রোববার রাতে ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

কোতোয়ালি থানায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর করা মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

নারী ও শিশু নির্যাতন, অপহরণ করে ধর্ষণ এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চরিত্র হননের অভিযোগ এনে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ২১ সেপ্টেম্বর ওই ছাত্রী মামলা করেন।

এ মামলায় ৪ নম্বর আসামি সাইফুল ও ৫ নম্বর আসামি নাজমুল। এ মামলায় ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরও আসামি।

ঢাবির ওই শিক্ষার্থী ২০ সেপ্টেম্বর লালবাগ থানায়ও তাদের বিরুদ্ধে একটা মামলা করেন।
আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে রাজু ভাস্কর্য অনশন করতে গিয়ে অসুস্থ হয়েছিলেন সেই ছাত্রী।

শাহবাগে ও জাতীয় প্রেসক্লাবে ধর্ষণবিরোধী বিভিন্ন কর্মসূচিতে ছাত্র পরিষদের নেতাদের দেখা গিয়েছিল।

ধর্ষণ মামলার আসামি হওয়ার পরও তাদের গ্রেফতার না করায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সমালোচনার মুখে পড়েছিল।

তবে ছাত্র অধিকার পরিষদের গঠন করা তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন বলছে, অভিযুক্তরা ধর্ষণে জড়িত নন।

বিডি/ঢাপ্র