বায়ু দূষণে প্রতি বছর ৭০ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু

বায়ু দূষণের কারণে প্রতি বছর বিশ্বে ৭০ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু ঘটে। ছবি : সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক:

বায়ু দূষণের কারণে সৃষ্ট সমস্যার কথা তুলে ধরে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস জানিয়েছেন, বায়ু দূষণের কারণে প্রতি বছর আনুমানিক ৭০ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু ঘটে।

প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক নির্মল বায়ু দিবস উপলক্ষে জাতিসংঘের মহাসচিবের দেওয়া এক বার্তায় তিনি নীলাকাশের সঙ্গে আরো ভালো আগামী তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ইউএন নিউজ।

আজ সোমবার সারা বিশ্বে প্রথম নীলাকাশের জন্য নির্মল বায়ু দিবসটি পালন করা হয়। মানুষের স্বাস্থ্য ও প্রতিদিনের জীবনের জন্য নির্মল বায়ুকে গুরুত্ব দিয়ে ইউনাইটেড ন্যাশনস এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রাম (ইউনেপ) প্রতি বছর দিবসটি আন্তর্জাতিকভাবে পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করার স্বীকৃতি দেয়।

জীবনের জন্য নির্মল বায়ুর প্রয়োজনীয়তা, বিশ্বব্যাপী প্রতিনিয়ত সংঘটিত বায়ুদূষণ, মানবজীবন ও পরিবেশের ওপর বায়ুদূষণের চরম প্রভাব এবং বায়ুদূষণের মারাত্মক অবস্থা এবং এর থেকে আশু উত্তরণের প্রয়োজনীয়তাকে স্বীকৃতি দিয়ে এ দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

বায়ু দূষণের কারণে প্রতি বছর বিশ্বে ৭০ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু ঘটে। ছবি : সংগৃহীত

বিশ্বব্যাপী প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৯ জন শ্বাসের মাধ্যমে দূষিত বায়ু গ্রহণ করছে। বায়ু দূষণের কারণে প্রতি বছর আনুমানিক ৭০ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু ঘটছে। যাদের বেশিরভাগ মূলত নিম্ন ও মধ্য-আয়ের দেশের।

গুতেরেস বলেন, ‘বায়ু দূষণের কারণে হৃদরোগ, স্ট্রোক, ফুসফুস ক্যান্সার এবং অন্যান্য শ্বাসজনিত রোগ সৃষ্টি করছে। যা অর্থনীতি, খাদ্য সুরক্ষা এবং পরিবেশকেও মারাত্মক হুমকির মুখে ফেলছে।’
জাতিসংঘের মহাসচিব আরো বলেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারি থেকে সুস্থ হয়ে উঠে বিশ্বকে বায়ু দূষণ রোধে আরো বেশি মনোযোগ দিতে হবে।’

প্রসঙ্গত, গত বছরে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে ইউনাইটেড ন্যাশনস এনভায়রনমেন্ট প্রোগ্রামকে (ইউনেপ) প্রতি বছর ৭ সেপ্টেম্বর বিশ্বব্যাপী ‘আন্তর্জাতিক নির্মল বায়ু দিবস’ আন্তর্জাতিকভাবে পালনের আহ্বান জানায়।

বিডি/আ