মসজিদে নামাজ পড়ে ট্রেনের নিচে ঝাপ দিলেন গৃহবধূ!

নাটোর প্রতিনিধি:

নাটোরের নলডাঙ্গায় রেলওয়ে মসজিদে ২ রাকাত নামাজ পড়ার পর ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক লিলি বেগম নামে এক গৃহবধু।

ওই গৃহবধুর স্বামী দুবাই প্রবাসী। তিনি দুই সন্তানের জননী। বেশ কিছুদিন থেকে মাথা ও হাত ব্যাথার যন্ত্রণা ভোগ করছিলেন তিনি। ব্যাথার যন্ত্রণা থেকে বাঁচতেই তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে ধারণা করছেন নিহতের স্বজনরা।

নলডাঙ্গা থানার ওসি নজরুল ইসলাম ও উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, শনিবার রাত ৯টার দিকে সান্তাহার জিআরপি সদস্যরা মরদেহ উদ্ধার করে।

উপজেলা চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর জানান, রেলওয়ে কর্মচারী, রেলওয়ে মসজিদের মোয়াজ্জিন এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে ঘটনার আগে ওই গৃহবধু রেলওয়ে মসজিদে ২ রাকাত নফল নামাজ পড়েন। এরপর দুপুরে চিলাহাটি থেকে খুলনাগামী রুপসা এক্সপ্রেস ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি।

লিলি বেগম (৪০) রাজশাহী জেলার বাগমারা উপজেলার হামিরকুৎসা ইউনিয়নের অর্জুনপাড়া গ্রামের দুবাই প্রবাসী সিদ্দিকুর রহমানের স্ত্রী। তার ছেলে শাহিনুর জানান, প্রায় দেড়মাস আগে তার মা বাড়ির ছাদ থেকে সিঁড়ি দিয়ে নামতে গিয়ে পড়ে যায়।

ওই সময় তিনি মাথা আর হাতে ব্যাথা পান। নিয়মিত ওষুধ খেলেও মাঝে মাঝেই ব্যাথায় তীব্র যন্ত্রণা হতো। শনিবার দুপুরের কিছু আগে ‍ওষুধ পরিবর্তনের কথা বলে তিনি নলডাঙ্গায় আসেন। দুপুর পর আত্মহত্যার খবর জানতে পারেন তারা।

বিডি/সা