লম্বা চুলের আম্পায়ারকে ‘মেয়ে’ ভেবে অভিনন্দনের বন্যা!

ছবি : সংগৃহীত

অনলাইন ডেস্ক :

আইপিএলের মঞ্চে গতকাল ১৮ অক্টোবর দারুণ এক চমক হয়ে দেখা দিলেন আম্পায়ার পশ্চিম পাঠক। ডেভিড শেফার্ড থেকে ডিকি বার্ড বা হালের বিলি বাউডেন। ক্রিকেটারদের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিভিন্ন কারণে জনপ্রিয়তা পেয়েছেন আম্পায়াররাও।সানরাইজার্স হায়দরাবাদ এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সের ম্যাচে তাকে দেখে তো সোশ্যাল মিডিয়া উচ্ছ্বসিত। কাঁধ ছাপানো কোঁকড়া চুল দেখে অনেকে ধরেই নিয়েছিলেন তিনি নারী।

নারী আম্পায়ারকে ম্যাচ পরিচালনার দায়িত্ব দেওয়ায় সোশ্যাল সাইট ব্যবহারকারীদের একাংশ তো আইসিসিকে ধন্যবাদ জানাতেও শুরু করে দিয়েছিল! কিন্তু পরে জানা গেল, লম্বা চুলের আম্পায়ার নারী নন। তিনি পুরুষ। নাম, পশ্চিম পাঠক। ৪৩ বছর বয়সী পশ্চিম পাঠক মুম্বাইয়ের বাসিন্দা। বহু বছর ধরে আম্পায়ারিং করছেন। ২০০৯ সাল থেকে তিনি ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত আম্পায়ারিং শুরু করেন। ভারতের ২ টি টেস্ট এবং ৩টি ওয়ানডে ম্যাচের জন্য তিনি রিজার্ভ আম্পায়ার হিসেবে ছিলেন।

২০১২ সালে নারীদের আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচেও আম্পায়ারিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন পশ্চিম পাঠক। ২০১৫ সালে তিনি নজর কাড়েন অন্যদিকে। সে বার আর হেয়ারস্টাইল নয়। আইসিসির ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টির প্রস্তুতি ম্যাচে হেলমেটে মাথা ঢেকে মাঠে নেমেছিলেন। সেটা আসলে অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার ফিল হিউজের মর্মান্তিক স্মৃতির কারণে। ২০১৪ সালে শেফিল্ড শিল্ডে সিডনিতে সাউথ অস্ট্রেলিয়া বনাম নিউ সাউথ ওয়েলসের ম্যাচে শন অ্যাবটের বাউন্সারে মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন হিউজ।

আইপিএলে তার স্টাইল এখন কোঁকড়া চুলের উপর ক্যাপ এবং রোদচশমা। সঙ্গী আম্পায়ার সুন্দরম রবিকে নিয়ে মাঠে নামতেই ক্যামেরা ঘুরে গিয়েছে পশ্চিমের দিকে। ‘স্টাইলভাই’ থেকে হয়ে গেছেন ‘রকস্টার’। পশ্চিমের নামের পাশে এখন সোশ্যাল সাইট ব্যবহারকারীদের দেওয়া রকমারি বিশেষণ। তাকে দেখে অনেকেই ভেবেছেন এটা হয়তো তার প্রথম আইপিএল অভিযান। কিন্তু সেটা ঠিক নয়। এর আগে ২০১৪ ও ২০১৫ মৌসুমেও তিনি আম্পায়ারিং করেছেন। তবে তখন তার চুল লম্বা ছিল না।